চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে রেডি মেইড গার্মেন্টস ও এগ্রো-ফুড সেক্টরের “কম্পিট্যান্সি স্ট্যান্ডার্ড তৈরি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন।

চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে রেডি মেইড গার্মেন্টস ও এগ্রো-ফুড সেক্টরের “কম্পিট্যান্সি স্ট্যান্ডার্ড তৈরি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন এটুআই প্রোগ্রামের যুগ্ম প্রকল্প পরিচালক জনাব ড. দেওয়ান মোঃ হুমায়ুন কবীর, । বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন একশন এইড বাংলাদেশ এর ম্যানেজার জনাব নাজমুল আহসান। বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড-এর উপ-পরিচালক জনাব এস এম শাহজাহান-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন জনাব আসাদ-উজ-জামান, হেড, ফিউচার অফ ওয়ার্ক ল্যাব, এটুআই

চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরের “কম্পিট্যান্সি স্ট্যান্ডার্ড তৈরি বিষয়ক অনলাইন কর্মশালার উদ্বোধন

চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরের “কম্পিট্যান্সি স্ট্যান্ডার্ড তৈরি বিষয়ক অনলাইন কর্মশালার উদ্বোধন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন এটুআই প্রোগ্রামের যুগ্ম প্রকল্প পরিচালক জনাব সেলিনা পারভেজ। বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর পরিচালক( আইটিসি) জনাব মামুন উল হক, বাংলাদেশ লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং মালিক সমিতির সভাপতি জনাব আব্দুর রাজ্জাক, একশন এইড বাংলাদেশ এর ম্যানেজার জনাব নাজমুল আহসান। বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড-এর চেয়ারম্যান জনাব মোরাদ হোসেন মোল্লা-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন জনাব আসাদ-উজ-জামান, হেড, ফিউচার অফ ওয়ার্ক ল্যাব, এটুআই।

Singapore’s 4.0 challenge

While Industry 4.0, also known as the Fourth Industrial Revolution, presents a great many challenges to less developed frontier economies like Cambodia and Lao PDR, more developed countries in the region have not been spared as well. Singapore, for example, is facing a challenge precisely because of its fast-paced development.

Cisco and Oxford Economics recently analysed 433 occupations across 21 industries and noted that more full-time workers (21 percent) will probably lose their jobs in Singapore compared to other ASEAN countries. Looking at the ASEAN-6 countries (Indonesia, Malaysia, Philippines, Singapore, Thailand and Vietnam), the study revealed a correlation between a high job displacement rate and an “exceptional” environment for innovation and digital transformation.

In absolute numbers, however, the number of workers expected to be displaced in Singapore (500,000) trails the figures for Indonesia (9.5 million) and Vietnam (7.5 million), for instance.

While the study claimed that more jobs will be created because of the economic growth that comes with improved technology, it unfortunately also notes that the ASEAN workforce isn’t ready to fill in these new roles.

“Our analysis reveals that 41 percent of that 6.6 million cohort are ‘acutely lacking’ the IT skills new jobs will be demanding. Almost 30 percent lack ‘interactive skills’ that will be demanded by future vacancies — such as negotiation, persuasion, and customer service skills. Just over 25 percent also lack ‘foundational skills’ — such as active learning, reading, and writing skills that are required to a much greater extent in ASEAN’s future labour market,” the study noted.

 

Fastest growing jobs

Another survey found that the demand for jobs in technology that also require management and communication skills is growing the fastest in Singapore. LinkedIn analysed millions of unique, user-input job titles based on common job roles and counted the frequency of job titles held in 2013 and compared the results to job titles held in 2017.

According to the report, the top five emerging jobs in Singapore are data scientist, cyber security specialist, user experience designer, head of digital and content specialist. Jobs in data science grew at a rate of 17 times, from 2013 to 2017. Jobs in cyber security grew at a rate of 5.5 times, while jobs in user experience design grew at 3.4 times. Head of digital and content specialist jobs both grew at a rate of three times.

Cisco and Oxford Economics believe that mitigating the negative impact of technological change may require massive policy changes within education systems, adding that there is no one size-fits-all solution.

Because of the nature of the ASEAN-6 skills challenge, an integrated effort from all parties will be needed. This includes government departments, businesses, educational institutions, technology providers, and workers’ groups which will have to work collectively to provide workers with the necessary tools and skills for the transition.

Getting 4.0-ready

Recently, the Singapore National Trades Union Congress (NTUC) revealed that a wide-ranging study will be under way in the coming months to find out how Singapore’s workers can be matched to future jobs. NTUC secretary-general Ng Chee Meng said this data will help define how workers can be trained even as their workplaces undergo changes.

The study will collect information from six clusters: manufacturing; built environment; trade and connectivity; essential domestic services; modern services; and lifestyle. The findings are expected to be ready a year from now.

Meanwhile, Nanyang Technological University (NTU) Singapore and Delta Electronics are opening a second laboratory space to accommodate expansion in research activities. The first lab was launched in 2016 with the support of the National Research Foundation (NRF). The second lab already has 15 projects.

Under one such project, the Smart Learning research track, the Corp Lab has developed a Smart Learning Platform that will equip professionals and enterprises with the latest Industry 4.0 skills. The platform will combine the latest information from industry and data generated from participants’ learning proficiency to create a customised content package that will enhance the overall learning experience.

The Singapore government is also looking to build up local skillsets in artificial intelligence (AI) through two new initiatives, with the aim to enrol 12,000 industry professionals and young students.

One of the initiatives, dubbed AI for Everyone, is targeting to enrol 10,000 people including secondary school students and working adults and introducing them to the potential of AI technologies. The programme, offered free to the public, would be jointly supported by industry regulator Infocomm Media Authority (IMDA) and software vendor Microsoft. Chipmaker Intel also would be roped in as a content provider.

The second initiative is targeted at “technically inclined” industry professionals with the aim to train 2,000 people in basic AI competency. It would focus on software development skills for the Python platform and participants would receive a Foundation in AI certification upon completing the programme.

It’s premature to say whether Singapore will be able to meet the challenges that come with Industry 4.0 but so far there have been strong efforts by various parties. If this positive trend continues then it’s more likely than not that Singapore will welcome Industry 4.0 with a smile.

More at: https://theaseanpost.com/article/singapores-40-challenge

Govt pilots 50 projects to develop skilled workforces

The Daily Observer

Published : Wednesday, 26 August, 2020 at 12:00 AM  Count : 105
facebook sharing button
The government has begun piloting 50 projects to develop skilled workforces towards the fourth industrial revolution (4IR) in collaboration with ministries, industries and academies.
The ‘Aspire to Innovate (a2i) programme’ under Information and Communication Technology (ICT) Division is implementing the projects in association with the Cabinet Division and UNDP Bangladesh.
ICT Division Senior Secretary NM Zeaul Alam inaugurated the projects through videoconferencing while addressing an online workshop on occupation-based readiness analysis and competency standard.
Temasek Foundation and Singapore Polytechnic International organized the A2i workshop on Monday night focusing on the skilled workforce for 4IR future.
Future of Work Lab head Asad Uz Zaman presented the concept note of the pilot projects while A2i project director Md Abdul Mannan presided over the session. Singapore Polytechnic Institute General Manager Andrew Tan connected to the session as a special guest.
Senior Secretary NM Zeaul Alam said the ICT Division has been working to modernise public and private offices following the Digital Bangladesh vision by Prime Minister Sheikh Hasina.

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব উপযোগী ৫০টি পাইলট প্রকল্প উদ্বোধন

চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে আজ ২৪ আগস্ট ২০২০ চতুর্থ শিল্প বিপ্লব উপযোগী ৫০টি পাইলট প্রকল্প উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, পিএএ এবং একই সঙ্গে অকুপেশন-ভিত্তিক রেডিনেস এনালাইসিস ও কম্পিট্যান্সি স্ট্যান্ডার্ড এবং কারিকুলাম তৈরি বিষয়ক এক অনলাইন কর্মশালার উদ্বোধন করা হয়।

অনলাইন কর্মশালাটি টেমাসেক ফাউন্ডেশন ও সিঙ্গাপুর পলিটেকনিক ইন্টারন্যাশনাল-এর সহযোগিতায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন এবং ইউএনডিপি এর সহায়তায় পরিচালিত অ্যাস্পায়ার টু ইনোভেট (এটুআই) প্রোগ্রাম আয়োজন করেছে।

এটুআই-এর প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. মোঃ আব্দুল মান্নান, পিএএ এর সভাপতিত্বে ও এটুআই-এর হেড অব ফিউচার অব ওয়ার্ক ল্যাব আসাদ-উজ্-জামান ‘চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব উপযোগী প্রযুক্তি নির্ভর ৫০টি পাইলট প্রজেক্ট’ এর ধারণা বিষয়ক একটি উপস্থাপনা প্রদান করেন। অনলাইন কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন সিঙ্গাপুর পলিটেকনিক ইন্টারন্যাশনাল-এর জেনারেল ম্যানেজার জনাব এন্ড্রুও টান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দেওয়ার পর থেকেই আমরা চতুর্থ শিল্প-বিপ্লবের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। সব উদ্যোগগুলোর সাথে চতুর্থ শিল্প-বিপ্লবের উপাদানসমূহ সমন্বয় করে বিভিন্ন সেক্টরের দক্ষতা উন্নয়নে আমরা বর্তমানে কাজ শুরু করেছি। ভবিষ্যতে সকল সেক্টরে প্রযুক্তি-নির্ভর দক্ষ জনশক্তি বৃদ্ধি করা এখন আমাদের অন্যতম লক্ষ্য।

সিঙ্গাপুর পলিটেকনিক ইন্টারন্যাশনাল-এর জেনারেল ম্যানেজার এন্ড্রুও টান বলেন, গত চার দশক ধরে বাংলাদেশ এবং সিংগাপুরের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজ করছে। যা ১৯৭২ সালে কুটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে শুরু হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ে এ সম্পর্ক সরকারি বেসরকারি পর্যায়ে আরো গতিশীল হয়েছে, এ প্রোগ্রাম তার অন্যতম উদাহরণ আমরা এ যাত্রা অব্যাহত রাখতে চাই।

সভাপতির বক্তব্যে এটুআই-এর প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ আব্দুল মান্নান  বলেন, চতুর্থ শিল্প-বিপ্লবের ফলে বাংলাদেশে অনেক সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং সে সুযোগগুলো কাজে লাগাতে হবে। এজন্য আমাদের অকুপেশন-ভিত্তিক রেডিনেস এ্যানালাইসিস করা প্রয়োজন এবং কম্পিটেন্সি স্ট্যান্ডার্ট তৈরি করতে হবে। আমরা সিঙ্গাপুর ভিত্তিক টেমাসেক ফাউন্ডেশন ও সিঙ্গাপুর পলিটেকনিক এর সহযোগিতায় ৫০টি প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এর মধ্যে ১৬টি প্রকল্প সরকারি দপ্তর (মন্ত্রণালয়/অধিদপ্তর), ২৭টি প্রকল্প শিল্প প্রতিষ্ঠান/এসোসিয়েশন এবং ২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ৭টি প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে। এ প্রজেক্টসমূহ আমরা বাস্তবায়ন করতে চাই এবং দেখাতে চাই চতুর্থ শিল্প-বিপ্লব মোকাবেলায় আমরা দক্ষতা অর্জন করেছি এবং আমাদের দেখে অন্যরা অনুপ্রাণিত হবেন, উৎসাহিত হবেন।

 

টেক্সটাইল অ্যান্ড ফ্যাশন ইন্ড্রাস্ট্রি ট্রেনিং সেন্টার-এর প্রধান নির্বাহি ডোরেন টান, বাংলাদেশ টেকনিক্যাল এডুকেশন বোর্ড (বিটিইবি)-এর উপ-পরিচালক (কোর্স অ্যাক্রিডেশন) এস এম শাহজাহান এবং সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্মকর্তাগণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন।